1. nabadhara@gmail.com : Nabadhara : Nabadhara ADMIN
  2. bayzidnews@gmail.com : Bayzid Saad : Bayzid Saad
  3. bayzid.bd255@gmail.com : Bayzid Saad : Bayzid Saad
  4. : deleted-B6iY9nGV :
  5. mehadi.news@gmail.com : MEHADI HASAN : MEHADI HASAN
  6. jmitsolution24@gmail.com : support :
  7. mejbasupto@gmail.com : Mejba Rahman : Mejba Rahman
  8. : wp_update-1720111722 :
শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

কোটালীপাড়ায় গত নির্বাচনের বিদ্রোহী পেলেন নৌকা প্রতীক

Reporter Name
  • প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৫২ জন নিউজটি পড়েছেন।
কোটালীপাড়া প্রতিনিধিঃ
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা ইউপি নির্বাচনে বিদ্রোহী পেয়েছেন নৌকা প্রতীক । এ নিয়ে কোটালীপাড়া উপজেলায় কুশলা ইউনিয়নে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।
উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য  সুলতান মাহামুদ চৌধুরী কালু বিগত ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মোঃ কামরুল ইসলাম বাদলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হন। ওই নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী কামরুল ইসলাম বাদল ১০ হাজার ২ শ’ ৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বিদ্রোহী প্রার্থী আনারস প্রতিক নিয়ে ১ হাজার ৪ শ’ ২২ ভোট পেয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন। তখন তাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়নি। আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটিতেও সুলতান মাহামুদ চৌধুরী কালু কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য পদেই রয়েছেন। ২০১৬ সালে মোঃ কামরুল ইসলাম বাদল কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলেন। বর্তমানে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে কুশলা ইউপির একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, কোটালীপাড়া প্রধানমন্ত্রীর নিজ নির্বাচনী এলাকা। এখানে নৌকার প্রার্থীরা বিপুল ভোটে জয়লাভ করে আসছেন। এবারও তার কোন ব্যত্যয় হবে না। গত নির্বাচনে নৌকা বিরুদ্ধে বিদ্রোহী হয়ে সুলতান মাহামুদ চৌধুরী কালু বিপুল ভোটে পরাজিত হন। বিদ্রোহীদের নৌকার প্রার্থী করা হবে না বলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতারা একাধিক বার বক্তৃতা ও বিবৃতিতে বলেছেন। কুশলা ইউনিয়নে নৌকার যোগ্য ও জনপ্রিয় প্রার্থীর অভাব নেই। বিদ্রোহীকে এখানে নৌকার প্রার্থী করায় ইউনিয়ন জুড়ে আলোচনা ও সমলোচনার ঝড় উঠেছে। তাই বিদ্রোহীকে বদলে পরিচ্ছন্ন ইমেজের একজনকে নৌকার প্রার্থী করার দাবি জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে সুলতান মাহামুদ চৌধুরী কালু বলেন, ২০১৬ সালের নির্বাচনে আমি কুশলা ইউনিয়নের জনগনের প্রার্থী হয়েছিলাম। তবে বিদ্রোহী হইনি। তখন আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের  কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলাম। এখনও আমি আওয়ামী লীগের ওই একই পদেই রয়েছি। কিন্তু গত নির্বাচনে আমি পরাজিত হইনি।  আমি  নির্বাচনের মাঠ ছেড়ে দিয়েছিলাম। এ কারণে  আমাকে এবারের নির্বাচনে নৌকা দেয়া হয়েছে।
কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাস বলেন, সুলতান মাহামুদ চৌধুরী কালু বিদ্রোহী হওয়ার  সমস্ত কাগজপত্র আমরা কেন্দ্রে পাঠিয়েছিলাম। দলের কেন্দ্রীয় নমিনেশন  বোর্ড থেকেই কোটালীপাড়ার সব ইউনিয়নে নৌকার নমিনেশন দেয়া হয়েছে। নমিনেশনের ব্যাপারে আমাদের কোন হাত নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved সর্বস্বত্বঃ দেশ হাসান
Design & Developed By : JM IT SOLUTION